1. munnanews@gmail.com : Mozammel Hossain Munna : Mozammel Hossain Munna
  2. badal.satvnews@gmail.com : Badal Saha : Badal Saha
  3. jmmasud24@gmail.com : Mozammel Hossain Munna : Mozammel Hossain Munna
শারদীয় দুর্গোৎসব ঘিরে ব্যাপক প্রস্তুতি শুরু | Dainik Mohona
শনিবার, ১০ অক্টোবর ২০২০, ০৪:৪৩ অপরাহ্ন
নোটিশ :
দৈনিক মোহনা পত্রিকার অনলাইন ভার্সনে আপনাদের স্বাগতম। করোনা ভাইরাস রোধে নিয়মিত সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার রাখুন, বাইরে গেলে মাস্ক ব্যবহার করুন। ধন্যবাদ।
শিরোনাম :
টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের নব নিযুক্ত ভিসির শ্রদ্ধা নড়াইলে বিভিন্ন পূজাঁ কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় সভা সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ঘটনায় সাথে জড়িত কেউই রেহায় পাবে না- টুঙ্গিপাড়ায় আইজিপি শারদীয় দুর্গোৎসব ঘিরে ব্যাপক প্রস্তুতি শুরু চিত্রশিল্পী এসএম সুলতানের ২৬তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ করোনাকালীন সময়ে যশোর সেনানিবাসের জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত গোপালগঞ্জের বলাকৈড় পদ্মবিল পরিদর্শন বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন প্রতিনিধির ত্রান বিতরণসহ বহুমূখী জনকল্যানমূলক কার্যক্রমে সেনাবাহিনী অন্যায়ের সাথে জড়িতরা কেউ রেহাই পাবে না-আইজিপি বেনজীর চিনি কল বন্ধের প্রতিবাদে নড়াইলে বিক্ষোভ মিছিল ও স্মারকলিপি পেশ

শারদীয় দুর্গোৎসব ঘিরে ব্যাপক প্রস্তুতি শুরু

  • ..............প্রকাশিত : শনিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২০
  • ০ জন সংবাদটি পড়েছেন।

মোহনা রিপোর্ট।।

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির জেলা গোপালগঞ্জে শারদীয় দুর্গোৎসব ঘিরে ব্যাপক প্রস্তুতি শুরু হয়েছে।এখানে বরাবরই বিভিন্ন উৎসব বা পার্বন সার্বজনিন ভাবে পালন হয়ে থাকে।দুর্গোৎসবে জেলার সব ধর্ম-বর্নের মানুষ মেতে উঠে আনন্দ-উৎসবে। এই উৎসব পালনের প্রধান অনুসংগ প্রতিমা ও পূজামণ্ডপ তৈরির কাজ পুরোদমে চলছে। জেলায় এক হাজার ১শ’ ৯৮ টি মন্ডপে এবার দুর্গোৎসব পালন করা হবে। আর তাই ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা শিল্পীরা। তবে এবার করোনাভাইরাসের কারনে অনাড়ম্বরভাবে এবার ধর্মীও অনুষ্ঠানাদি পালন করা হবে বলে পূঁজা উৎযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন।

হিন্দু সম্প্রদায়ের সব চেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু হতে আর কিছু দিন বাকি। গোপালগঞ্জে এ বছর ১হাজার ১শ” ৯৮টি মন্ডপে পুজো অনুষ্ঠিত হবে। আয়োজন হবে নানা ধর্মীয় অনুষ্ঠান।এসব অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছেন জেলাবাসী।

জেলা উদীচীর সভাপতি নাজমুল ইসলাম জানান, হিন্দু সম্প্রদায়েরে উৎসব হলেও এ উৎসব ইতোমধ্যে গোপালগঞ্জে সার্বজনিনতা পেয়েছে।সব ধর্মের লোকেরাই উৎসব আয়োজনে যোগ দেন।এ জেলায় পূজাঁর আনুষ্ঠানিকতা করেন হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন।আর উৎসবে যোগ দেন সব ধর্মের লোকজন।

আগামী ২১ অক্টোবর বোধন আর ২৩ অক্টোবর ষষ্ঠী পূঁজার মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের এ মহোৎসব শুরু হতে যাচ্ছে। শারদীয় দুর্গোৎসব ঘিরে তাই প্রতিমা তৈরি ও মন্ডপ তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। নিখুঁতভাবে কাজ ফুটিয়ে তুলতেই সর্বোচ্চ মনোযোগ প্রতিমা শিল্পীদের।

প্রতিমা তৈরির কাজ প্রায় শেষ করে ফেলেছেন প্রতিমা শিল্পীরা।শুধু পেশার খাতিরে নয় তারা প্রতিমা তৈরী করতে পেরে নিজেদেরকে ধন্য মনে করে থাকেন।নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই তারা প্রতিমা তৈরীর কাজ শেষ করবেন বলে জানালেন প্রতিমা শিল্পীরা।

কেন্দ্রীয় কালিবাড়ির সাধারন সম্পাদক বিভূতি রায় জানান, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এ জেলায় সব ধর্ম-বর্নের সহযোগিতায় এবছর করোনাভাইরাসের কারনে আড়ম্বর বিহীন দূর্গাউৎসব পালন করা হবে ।ধর্মীয় সব আচার অনুষ্ঠান পালন করা হলেও উৎসব হিসাবে লাইটিংসহ অন্যান্য যেসব অনুষ্ঠান পালন করা হয়ে থাকে তা করা হবে না।

বাংলাদেশ পূঁজা উদযাপন পরিষদ, গোপালগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি ডাঃ অসিত কুমার মল্লিক জানান, গোপালগঞ্জ সাম্প্রদায়িক সম্পীতির এক অনন্য উদাহরন।জেলায় এ বছর ১ হাজার ১শ’ ৯৮টি পূঁজা মন্ডপে দূর্গোৎসব পালনের প্রস্তুতি চলছে। এবছর করোনা দুর্যোগের কারনে উৎসব ছাড়া অন্যান্য ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালনের মধ্য দিয়ে জেলাবাসী এ উৎসব পালন করবে।এ বছর দেবীর দোলায় (দোলনা)করে আগমন ঘটবে, আর গজে করে গমন করবেন বলে জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020
Design & Development By JM IT SOLUTION